সংবাদ শিরোনাম :

অজান্তেই কি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, জানাবে এই লক্ষণগুলো

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৩ জুন, ২০২০
  • ১৬৭ যত সময় দেখা হয়েছে

করোনাভাইরাস মহামারিতে আতঙ্কে রয়েছে সবাই। দেশে এরই মধ্যে ৮০ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে এক হাজারের বেশি মানুষের। এই সময়ে কাশি বা সামান্য জ্বর আসলেও অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। তারা ভাবছেন এটা করোনার কারণে হচ্ছে না তো।

এটি সত্য যে করোনায় আক্রান্তদের একটি বড় অংশের তেমন কোনো লক্ষণ দেখা দেয় না বা হালকা লক্ষণ দেখা দেয়। সুতরাং এটি সম্ভব হতে পারে যে কিছু মানুষ এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং তারা সুস্থ হয়ে গিয়েছেন, তবে এটি তারা জানেন না।

তারপরও যাদের করোনার লক্ষণ দেখা দেয় তারা জানা না থাকার কারণে সেটি শনাক্ত করতে পারেন না। এখানে এমন কয়েকটি করোনার লক্ষণের কথা উল্লেখ করা হলো যেগুলো সম্ভাব্য করোনার সংক্রমেণের দিকে নির্দেশ করে।

ভারী সর্দি ও জ্বরে ভুগছেন?

ঋতু পরিবর্তনের সময় সর্দি বা নাকের সমস্যা এবং অ্যালার্জির কারণে চুলকানি হওয়া খুবই সাধারণ বিষয়। তারপরও করোনার এই সময়ে প্রতিটি লক্ষণই গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত। এসময় লক্ষণগুলোকে ভালোভাবে পর্যালোচনা করতে হবে। যদি সর্দির সঙ্গে শরীরের তাপমাত্রা হঠাৎ করে বেড়ে যায় তাহলে এটি নিয়মিত ফ্লু হতে পারে। তবে এগুলো করোনার লক্ষণও হতে পারে।

গন্ধ অনুভূতি কমে যাওয়া

গন্ধ বা স্বাদ হ্রাস তখন ঘটে যখন কোনও ব্যক্তি গন্ধ সনাক্ত করতে অক্ষম হয়। এটি সাধারণত এমন সময় হয় যখন কোনো ব্যক্তির সর্দির কারণে নাক বন্ধ থাকে। তবে এটিকে করোনাভাইরাসেরও অন্যতম একটি উপসর্গ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। তবে করোনার ক্ষেত্রে স্বাদ গন্ধ হারানোর লক্ষণটি ভিন্ন। এক্ষেত্রে সর্দি বা নাক বন্ধ না থাকলেও গন্ধ অনুভূতি হারিয়ে ফেলেন করোনা আক্রান্তরা। বিজ্ঞানীরার এও জানিয়েছেন যে, যখন করোনাভাইরাস নাকের মধ্যে অবস্থান করে তখন এমনটি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

মাথা ব্যাথা

ঠান্ডা লাগলে মাথা ব্যাথা একটি সাধারণ পরিণতি। তবে মাথা ও কপালের সবখানে প্রচণ্ড ব্যাথা করোনার লক্ষণ হতে পারে। করোনায় আক্রান্ত হলে তীব্র মাথাব্যাথা হতে পারে, এটা সাধারণত ভাইরাল আক্রমণের প্রতিরোধ ব্যবস্থা প্রস্তুত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘটতে পারে।

শ্বাসকষ্ট অনুভব করছেন?

করোনার অন্যতম প্রধান লক্ষণ শ্বাসকষ্ট। ভাইরাস আপনার শ্বাসযন্ত্রে আক্রমণ করে এবং ফুসফুসের চারপাশে ক্ষতি করে যার কারণে তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এছাড়া এর ফলে শুষ্ক কাশি, ও হার্ট বিট বাড়িয়ে দেয়।

কভিড টয়েস

করোনায় আক্রান্ত শিশুদের মধ্যে এই লক্ষণ দেখা যেতে পারে। এসময় পায়ের আঙ্গুলে ক্ষত দেখা যায়। তুষারে মানুষের যেমন আঙ্গুল ক্ষতি করে এটির চিহ্নও অনেকটা সেরকম। এটি বড়দের ক্ষেত্রেও দেখা দিতে পারে। ভাইরাস আক্রমণের পর রক্তপ্রবাহে বাধা সৃষ্টি হলে বা রক্ত জমাট বাঁধলে ত্বকে এমন ক্ষতের সৃষ্টি হয়। কখনো কখনো এটির ফলে পায়ের পাতা ও পা ফুলে যায়। এমন লক্ষণ দেখা দিলে তা উপেক্ষা করা উচিত নয়।

মাথা ঘোরা

করোনাভাইরাস নিউরোলজিকাল লক্ষণগুলিও প্রদর্শন করতে পারে এবং আপনাকে দুর্বল করে দিতে পারে। অস্বস্তি বোধ করা, ক্লান্তি বা হালকা মাথাব্যাথা অনুভূত হতে পারে যখন শরীর ডিহাইড্রেট হয় বা পুষ্টির কম থাকে। তবে এগুলো করোনাভাইরাসের কারণেও হতে পারে এজন্য এমন লক্ষণ দেখা দিয়ে তা এড়ানো উচিত নয়।

গোলাপী চোখ

ভাইরাসটি কেবল শ্বাসকষ্টের ফোঁটাগুলির মাধ্যমে ছড়িয়ে যেতে পারে না তবে চোখের তরল হয়েও চোখকে প্রভাবিত করে। করোনা পজিটিভ হিসাবে পাওয়া লোকদের মধ্যে গোলাপী চোখ লক্ষ্য করা যায়। একটি সমীক্ষায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, কোনো রোগী গোলাপী চোখের মধ্যে ভুগতে পারে, তার অবস্থা আরও মারাত্মক।

ঠান্ডা-জ্বরের সঙ্গে গ্যাসট্রিকের সমস্যা

যদিও ঠান্ডা, কাশি, জ্বর, দুর্বলতা এবং ক্লান্তি- এগুলো সাধারণ ফ্লুর লক্ষণ তবে করোনাও এমন প্রভাব ফেলতে পারে। তবে কোষ্ঠকাঠিন্য বমিভাব বা ডায়রিয়া অনুভব করা এবং গ্যাসট্রিকের সমস্যা মোটামুটি সাধারণ বিষয়।

পেশীতে ব্যথা

সেন্টার অফ ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এর মতে, করোনভাইরাস শরীরকে একের চেয়ে বেশি উপায়ে প্রভাবিত করে এবং একাধিক লক্ষণ একই সাথে আপনাকে আঘাত করলে এটি শক্তি হ্রাস করতে পারে। অতএব, রক্ত প্রবাহ হ্রাসজনিত কারণে পেশীতে ব্যথা অনুভূত হতে পারে। এটি করোনার সাধারণ লক্ষণ হতে পারে।

ত্বকে ফুসকুড়ি

ত্বকে লাল, গোঁড়া ফুসকুড়িকে করোনার অন্যতম স্বীকৃত লক্ষণ হিসাবেও অভিহিত করা হয়। হামের মতো এমন ফুসকুড়ি করোনার লক্ষণ হতে পারে।

তীব্র শীত অনুভূত হওয়া

অকারণে শীত অনুভূত হওয়া এবং তীব্র কাঁপুনি করোনা লক্ষণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কম হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তীব্র শীত অনুভূত হতে পারে। এছাড়া ঠোঁট ও ত্বক নীল হয়ে যেতে পারে।

পোস্টটি আপনার বন্ধুকে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
About Us | Privacy Policy | Term and Condition | Disclaimer |© All rights reserved © 2021 probashirnews.com