সংবাদ শিরোনাম :

কাতার সঙ্কট মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতার পরিপন্থী, সৌদি বাদশাকে পুতিন

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮
  • ৮৪ যত সময় দেখা হয়েছে

কাতারের সঙ্গে চলমান সঙ্কট মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যৌথ প্রচেষ্টার স্বার্থে কাজ করছে না বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বুধবার এক টেলিফোন কথোপকথনে সৌদি বাদশা সালমানকে পুতিন এ কথা বলেন। ক্রেমলিনের এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয় যে, উপসাগরীয় অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিন ও বাদশা সালমান আলোচনা করেছেন। তাদের ওই আলোচনায় কাতার ও অন্যান্য দেশের মধ্যেকার সম্পর্কের বিষয়টিও ওঠে আসে।

পুতিন সৌদি বাদশাহকে ব্যাখ্যা করেছেন যে, কাতারের সঙ্গে চলমান সঙ্কট মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতার স্বার্থ কাজ করে না এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের যৌথ প্রচেষ্টায়ও এটি অবদান রাখছে না।’

‘সন্ত্রাসবাদে সমর্থন’ দেয়ার অভিযোগে গত বছরের ৫ জুন সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর কাতারের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক ছিন্ন করে এবং কাতারের ওপর অবরোধ আরোপ করে। যদিও দোহার পক্ষ থেকে ওই অভিযোগ বারবার অস্বীকার করা হয়েছে।

ক্রেমলিনের বিবৃতি অনুযায়ী, টেলিফোনে কথোপকথনের সময় প্রেসিডেন্ট পুতিন এবং বাদশা সালমান ‘সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে মত বিনিময় করেছেন’।

এসময় উভয় পক্ষই ‘উভয় দেশের মধ্যে প্রযুক্তিগত সামরিক সহযোগিতার বিষয়’ নিয়েও আলোচনা করেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

মস্কো ও রিয়াদের মধ্যেকার সম্পর্ক সম্প্রতি ক্রমবর্ধমানভাবে উন্নতির দিকে রয়েছে। গত অক্টোবরে বাদশা সালমান এক ঐতিহাসিক সফরে মস্কো গিয়েছিলেন। ওই সফরে সময় তিনি পুতিন এবং রাশিয়ার সিনিয়র কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করেছিলেন এবং দুই দেশের মধ্যে কোটি কোটি ডলারের অর্থনৈতিক ও সামরিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর

আইএস’কে সহায়তা করছে ইসরাইল: নেসেট সদস্য
জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসকে ইসরাইল সহায়তা করার অভিযোগ করেছেন ইসরাইলি পার্লামেন্টের একজন আরব সদস্য। এমনকি কুখ্যাত এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কাছ থেকে দেশটি তেল কিনছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

সোমবার ইসরাইলি পার্লামেন্ট ‘নেসেটে’ দেয়া এক বক্তৃতায় এই অভিযোগ করেন সংসদ সদস্য আইদা তুমা সোলায়মান।

ওয়াইনেট নিউজ জানিয়েছে, পার্লামেন্টে বক্তব্য দেয়ার সময় সংসদ সদস্য আইদা তুমা সোলায়মান বলেন, লেবানন ও সিরিয়ার সঙ্গে উত্তর সীমান্তে সম্পর্ক খারাপ করে ইচ্ছাকৃতভাবে ইসরাইল নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে হুমকিতে ফেলছে।

আইএসের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘আমি সব ধরনের চরমপন্থীদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের বিরুদ্ধে। আইএসের মতো যেসব সংগঠন মানুষকে গণহারে হত্যা করছে, তাদেরও বিরুদ্ধে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এমন না যে, শুধু আমিই আইএসের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্কের কথা জানি। ইসরাইলি সরকারের সঙ্গে আইএসের সম্পর্কের বিষয়টি জাতিসংঘও জানে।’

সোলাইমানের ভাষায়, ‘আইএসের থেকে তেল কেনাসহ এই সম্পর্কের শক্ত প্রমাণ আছে। নেতানিয়াহুর নেতৃত্বাধীন ইসরাইলি সরকারই এসব করেছে।’

পোস্টটি আপনার বন্ধুকে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
About Us | Privacy Policy | Term and Condition | Disclaimer |© All rights reserved © 2021 probashirnews.com