সৌদি প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে মোবাইলে কথা বলতে বলতে গ’লা’য় ফাঁ’স দিল স্ত্রী

প্রকাশিত: সেপ্টে ১০, ২০২০ / ১১:৫৭অপরাহ্ণ
সৌদি প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে মোবাইলে কথা বলতে বলতে গ’লা’য় ফাঁ’স দিল স্ত্রী

মোবাইলে প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে কথা বলতে বলতে ফাঁ’স দিল স্ত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে পু’লিশ তার লা’শ উ’দ্ধার করে ময়’নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে পাঠিয়েছে। বুধবার রাতে ম’র্মা’ন্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দর আবাসিক এলাকায়।

ভিডিওটি দেখুন এখানে

মৃ’ত গৃহবধূর নাম লাভলি বেগম। তার স্বজনদের দাবি, শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে শা’রীরিক’ভাবে নি’র্যাত’ন করে হ’ত্যা করেছে। পু’লিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ছাগলছিড়া গ্রামের হাসু মোল্লার মেয়ে লাভলি বেগমের সঙ্গে প্রায় সাত বছর আগে রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট আ’বা’সিক এলাকার মজিবর সরদারের সৌদি প্রবাসি ছেলে আজাদ সরদারের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে স্বামীর বাড়ির লোকজনের সঙ্গে পারিবারিক ক’লহ চলে আসছিল লাভলির। এরই জে’রেই বুধবার রাত সাড়ে ৯টার সময় লাভলি বেগম সৌদি প্রবাসী স্বামী আজাদের সঙ্গে মোবাইলে কথাকাটাটির একপর্যায়ে ওড়না পেঁ’চিয়ে

ফাঁ’স দিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলে আ’ত্মহ’ত্যা করার চেষ্টা করে। পরে বাড়ির লোকজন টের পেয়ে গৃহবধূ লাভলী বেগমকে উ’দ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে রাত ১১টার দিকে সে মা’রা যায়।

লাভলি বেগমের ভাই রাসেল মোল্লা বলেন, আমার বোনকে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন শারীরিকভাবে নি’র্যাত’ন করে হ’ত্যা করেছে। আমি এর সঠিক বি’চার চাই।

লাভলির শ্বশুর মজিবর সরদার তাদের বি’রু’দ্ধে হ’ত্যার অভি’যো’গ অ’স্বীকা’র করে জানান, সৌদি প্রবাসি আমার ছেলে আজাদের সঙ্গে মোবাইলে কথা কা’টা’কা’টি’র পর গ’লায় ওড়’না পেঁ’চিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলে আ’ত্মহ’ত্যা করার চেষ্টার খবর পেয়ে আমি বউকে উদ্ধা’র করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মা’রা যায়।

রা’জৈর থানার ও’সি শেখ সাদী জানান, এক গৃহবধূর মৃ’ত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অ’প’মৃ’ত্যুর মাম’লা হয়েছে। ময়’নাতদ’ন্তের রিপোর্ট পেলে মৃ’ত্যুর আসল রহ’স্য জানার পর পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।