অনেকেই জানেন না কেবিন ক্রুদের পাসপোর্ট বা ভিসা কেমন!

প্রকাশিত: সেপ্টে ১০, ২০২০ / ০৮:৫৫অপরাহ্ণ
অনেকেই জানেন না কেবিন ক্রুদের পাসপোর্ট বা ভিসা কেমন!

আম’রা ভাবি যারা প্লেন চালান বা কেবিন ক্রু হিসেবে কাজ করেন তাদের মতো সুখী আর কেউ হয় না। যখন খুশি যেখানে উড়ে বেড়াতে পারে। দায়িত্ব পা’লনের অংশ

ভিডিওটি দেখুন এখানে

হিসেবে দেশ-বিদেশে ঘুরে বেড়ান পাইলট ও কেবিন ক্রুরা। বিমানের যাত্রীদের অন্য

দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় পাসপোর্ট ও সংশ্লি’ষ্ট দেশের ভিসা। কিন্তু পাইলট ও কেবিন ক্রুদের কি পাসপোর্ট-ভিসা লাগে?

আন্তর্জাতিক ভ্রমণের ক্ষেত্রে পাসপোর্ট খুব গু’রুত্ব পূর্ণ। অন্য দেশে প্রবেশের জন্য এতে থাকতে হয় ভিসা। বলা যায়, কোনও দেশে প্রবেশের মূল চাবি পাসপোর্ট ও ভিসা। তাই

যাত্রীদের বিদেশে যেতে হলে অবশ্যই ভিসা সংগ্রহ ক’রতে হয়। দূতাবাস থেকে এটি যুক্ত

করে দেওয়া হয় পাসপোর্টে।

তবে কোনও কোনও দেশে যাওয়ার আগে ভিসা না লাগলেও সেগুলোর বিমানবন্দরে গিয়ে ইমিগ্রেশন থেকে ভিসা সংগ্রহ ক’রতে হয়। একইভাবে কূটনৈতিকসহ কোনও

কোনও ক্ষেত্রে ভিসা না লাগলেও বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশনে পাসপোর্ট দেখিয়ে প্রবেশ ক’রতে হয়।

আন্তর্জাতিক ভ্রমণের বেলায় পাইলট ও কেবিন ক্রুদের ভিসার প্রয়োজন নেই। একইস’ঙ্গে ফ্লাইটে দায়িত্বরত ইঞ্জিনিয়ারকেও ভিসা নিতে হয় না। তবে সবাইকে অবশ্যই পাসপোর্ট স’ঙ্গে রাখতে হবে।

ভিসা ছাড়া কীভাবে দেশ-বিদেশে ঘুরে বেড়ান পাইলট ও কেবিন ক্রুরা, এমন প্রশ্নের জবাবে কেবিন ক্রুরা জা’নান, ‘পাইলটদের জন্য ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন

অর্গানাইজেশন (আইকাও) ও ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের

(আএটিএ) কিছু নিয়ম-নীতি আছে। নিয়মানুযায়ী পাইলট ও কেবিন ক্রুরা যে এয়ারলাইনসে কাজ করেন, সেই বিমান সংস্থা থেকে তাদের জন্য জেনারেল ডিক্লারেশন (জিডি) ইস্যু করা হয়।

অর্থাৎ পাইলট ও ক্রুদের দায়িত্ব নেয় এয়ারলাইনস। সেজন্য জেনারেল ডিক্লারেশনে

কতজন পাইলট ও কেবিন ক্রু ফ্লাইটে যাবেন তাদের নাম, জ’ন্ম তারিখ, পাসপোর্ট নম্বর, ফ্লাইট নম্বর, গন্তব্যসহ প্রয়োজনীয় তথ্য উল্লেখ থাকে।’ সূত্র- এই সময়।