সংবাদ শিরোনাম :

প্রবাসী বাংলাদেশিদের খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে দূতাবাস

রিপোর্টার
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৪ যত সময় দেখা হয়েছে

লিবিয়ার ত্রিপলীতে চলছে টোটাল লকডাউন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাওয়া নিষেধ। এতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। করোনা মহামারিতে সৃষ্ট সংকট কাটিয়ে উঠতে বেকার বাংলাদেশিদের খাদ্য সরবরাহ করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন। অনলাইনে আবেদন করার পর দূতাবাস থেকে খাবার সংগ্রহের জন্য বলা হয় এবং যারা দূরে বসবাস করে তাদের এলাকায় দূতাবাস নিজেদের গাড়িতে করে খাবার পৌঁছে দেয়। গত সপ্তাহে ত্রিপলির বিভিন্ন এলাকায় বাংলাদেশ দূতাবাসের গাড়ি দিয়ে খাবার সরবরাহ করতে দেখা গেছে।

লিবিয়ায় নতুন করে টোটাল লকডাউন ঘোষণা করায় বর্তমানে কোন প্রবাসী দূতাবাস থেকে খাবার সংগ্রহ করতে পারছে না। দূতাবাসও এলাকাভিত্তিক খাবার সরবরাহ করতে পারছে না।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ দূতাবাসের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের দুর্যোগে লিবিয়ায় কারফিউ এবং ত্রিপলিতে চলমান যুদ্ধাবস্থার মধ্যেও দূতাবাসের পক্ষ থেকে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশি ভাইদের মৌলিক খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়ে আসছিল।

বৃহত্তর ত্রিপলি হতে ইতিমধ্যে অনলাইনে নিবন্ধনকৃত উল্লেখযোগ্যসংখ্যক প্রবাসী নাগরিক দূতাবাসে এসে মৌলিক খাদ্যসামগ্রী গ্রহণ করেছেন এবং যারা আসতে অপারগ, পর্যায়ক্রমে তাদের অনেকের কাছে দূতাবাসের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। বাকিদের নিকটও খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে।

কয়েকজন প্রবাসী দূতাবাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, তারা শুনেছে অনলাইনে আবেদন করলে বাসায় খাবার দিয়ে যাবে দূতাবাস থেকে। কিন্তু আবেদন করার পর তারা দূতাবাসের পক্ষ থেকে কোন সাহায্য পায়নি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে দূতাবাস থেকে বলা হয়, বাসায় খাবার পৌঁছে দেয়ার ব্যাপারে তাদের কোন নির্দেশনা ছিল না। উল্লেখযোগ্যসংখ্যক প্রবাসী দূতাবাস থেকে খাবার সংগ্রহ করেছে, তবে যারা যুদ্ধের কারণে অথবা যানবাহন সংকটের কারণে আসতে পারেনি- আমরা তাদের খাবার দিয়ে এসেছি।

প্রবাসীদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে দূতাবাস বলছে, ১৭ তারিখ থেকে নতুন করে ১০ দিনের টোটাল লকডাউন ঘোষণা করায় প্রবাসীরা আসতে পারছে না এবং আমরাও যেতে পারছি না। লকডাউন খুললে আবার আগের মতো খাবার সরবরাহ করা হবে।

পোস্টটি আপনার বন্ধুকে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
About Us | Privacy Policy | Term and Condition | Disclaimer |© All rights reserved © 2021 probashirnews.com