কলকাতার নায়িকারা আগ্রহী শাকিবে

প্রকাশিত: ডিসে ২, ২০১৯ / ০৭:১৮অপরাহ্ণ
কলকাতার নায়িকারা আগ্রহী শাকিবে

ঢাকাই ছবির শীর্ষ নায়ক শাকিব খান কলকাতায়ও বাজিমাত করেছেন। সেখানে কাজ করেছেন একাধিক নায়িকার সঙ্গে। আর কলকাতার নায়িকারাও শাকিবের সঙ্গে কাজ করতে দারুণ আগ্রহী। ‘ভাইজান এলোরে’ ছবিতে শাকিবের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে কলকাতার নায়িকা পায়েল এতটাই এক্সসাইটেড হয়ে পড়েছিলেন যে, শাকিবের সঙ্গে একটি গানের দৃশ্যে ঘনিষ্ঠ হতে গিয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিলেন।

ভিডিওটি দেখুন এখানে

আরেক নায়িকা শ্রাবন্তী বরাবরই বলে আসছেন ‘শাকিব শিল্পী হিসেবে যেমন ভালো, মানুষ হিসেবেও তেমনি অসাধারণ।’ তার সঙ্গে কাজ করাটা সৌভাগ্যের ব্যাপার। জানা গেছে, শাকিব-শ্রাবন্তী প্রথম জুটিবদ্ধ হয়ে কাজ করেন ‘শিকারি’ ছবিতে। আর এ ছবিতে কলকাতায় যখন শাকিব কাজ করতে যান তখন বলতে গেলে শ্রাবন্তী প্রায় প্রতিদিন শাকিবের জন্য উপাদেয় খাবার রান্না করে নিয়ে আসতেন। এমনকি বাসাতেও নিমন্ত্রণ করে মজার সব খাবার খাওয়াতেন। আর এ কারণে দুজনের সম্পর্ককে প্রেমের খবরের দোরগোরায় পৌঁছে দেন অনেকে। কলকাতার নায়িকা হিসেবে শাকিবের বিপরীতে প্রথম কাজ করেন

স্বস্তিকা। এফ আই মানিক পরিচালিত ‘সবার উপরে তুমি’ শিরোনামের এ ছবিটি ২০০৯ সালে বাংলাদেশে আর ২০১০ সালে কলকাতায় মুক্তি পায় ‘আমার ভাই আমার বোন’ নাম নিয়ে। ২০১৬ সালে এসকে মুভিজ ও বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়ার হাত ধরে শাকিব-শ্রাবন্তী জুটি বেঁধে কাজ করেন ‘শিকারি’ ছবিতে। কলকাতার নায়িকাদের মধ্যে ইতিমধ্যে

স্বস্তিকা, শ্রাবন্তী, নুসরাত, সায়ন্তিকা, পায়েল, পাওলী দাম, শুভশ্রীর কাজ করা হয়ে গেছে শাকিবের সঙ্গে। আরও অনেক নায়িকা মুখিয়ে আছেন শাকিবের সঙ্গে অভিনয় করার জন্য। এর মধ্যে কোয়েল মল্লিক অন্যতম। শোনা যাচ্ছে এ নায়িকা শাকিব প্রযোজিত একটি ছবিতে কাজ করতে প্রায় চূড়ান্ত হয়ে আছেন। কোয়েলও নাকি শাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। তার কথায় শাকিব অভিনয়ে যেমন দক্ষ তেমনি মানুষ হিসেবেও বেশ স্মার্ট ও হ্যান্ডসাম। সুযোগ পেলেই শাকিবের সঙ্গে কাজ করতে চাই।

২০১৭ সালে ‘নবাব’ ছবিতে জুটি বাঁধেন শাকিব খান ও শুভশ্রী। এই নায়িকা বাংলাদেশের সাংবাদিকদের কাছে শাকিবের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করতে গিয়ে অকপটে বলেন, শাকিবের সঙ্গে যৌথ আর স্থানীয় যেমন ছবিই হোক আমি অভিনয় করতে প্রস্তুত। এদিকে কলকাতা শুধু নয়, বলিউডেরও আলোচিত নায়িকা পাওলি দাম শাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধেন ২০১৭ সালে ‘সত্তা’ ছবিতে। বাংলাদেশের এ ছবিতে অভিনয় করতে এসে পাওলি দাম বলেন, শাকিবের অভিনয় আমার দেখা হয়েছে। অসাধারণ অভিনেতা তিনি।

তার সঙ্গে কাজ করতে পারাটা পরম সৌভাগ্যের বলে মনে করি। ২০১৮ সালে কলকাতার সায়ন্তিকা ও নুসরাত জাহান শাকিবের সঙ্গে অভিনয় করেন ‘নাকাব’ ছবিতে। কলকাতার এই দুই নায়িকাও শাকিবের সঙ্গে কাজ করতে পেরে খুশিতে আত্মহারা। তারা বলেন, এই সুদর্শন নায়কের সঙ্গে আমরা আরও কাজ করতে চাই। ২০১৮ সালে শুভশ্রী, সায়ন্তিকা ও শাকিবকে নিয়ে জয়দীপ মুখার্জি নির্মাণ করেন ‘চালবাজ’ ছবিটি। সায়ন্তিকাও নাকি অনেক দিন ধরে শাকিবের নায়িকা হওয়ার জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনছিলেন।

জানা গেছে, কলকাতার অনেক নায়িকাই শাকিবের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে ব্যক্ত করছেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে। এদিকে কলকাতার নায়িকাদের সঙ্গে কাজ করা ছবিগুলো দুদেশে সফল হওয়ায় স্থানীয় সিনেমা হলগুলোর মালিকদের দাবি, কলকাতার ছবি আমদানি না করে বাংলাদেশের শাকিব আর কলকাতার নায়িকাদের নিয়ে ছবি নির্মাণ বাড়ানো, হোক। কারণ কলকাতার ছবি এ দেশে সিনেমা হলে চলে না। এর প্রমাণ এ পর্যন্ত আমদানি করা কলকাতার কোনো ছবি এ দেশে চলেনি।

সর্বশেষ গত ২২ নভেম্বর কলকাতার ‘জানবাজ’ ও ২৯ নভেম্বর মুক্তি পায় কলকাতার ‘পাসওয়ার্ড’। জানবাজ আমদানি করে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান হার্টবিট প্রোডাকশন হাউস। এ প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার তাপসী ফারুক হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, দুর্ভাগ্য, ছবিটি মুনাফা দূরে থাক, মূল অর্থের সিকিভাগও ফিরিয়ে দিতে পারেনি। কারণ দর্শক নেই। তাপসী ফারুক বলেন, নানা জটিলতার কারণে কলকাতার ছবি সেখানে মুক্তির দীর্ঘ সময় পরে এখানে মুক্তি পায়।

ইতিমধ্যে নানা মাধ্যমে দর্শকের ছবিটি দেখা হয়ে যায়। তাছাড়া কলকাতার ছবির দর্শক হলো সিনেপ্লেক্স ভিত্তিক। তাই আমদানিকৃত এসব ছবির দর্শকগ্রহণযোগ্যতা পেতে সরকারকে একসঙ্গেই দুই দেশে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে এবং দেশে সিনেপ্লেক্সের সংখ্যা বাড়াতে হবে। একজন প্রদর্শক বলেন, একই সঙ্গে শাকিব খান ও কলকাতার নায়িকা নিয়ে যৌথ আয়োজনে ছবি নির্মাণ করতে হবে। তাহলেই এ দেশে ছবির ব্যজার ফের চাঙা হবে।