খেলার আগের রাতে সীসা বারে পাকিস্তানের ৩ ক্রিকেটার, মালিক-সানিয়া-ইমাম-ওয়াহাব

বিশ্বকাপে কখনোই ভারতকে না হারানোর রেকর্ড অক্ষুণ্ন রেখেছে পাকিস্তান। রোববারের (১৬ জুন) ম্যাচে বৃষ্টি আইনে ৮৯ রানে হারলেও, পারতপক্ষে ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং কোথাও সুবিধা করতে পারেনি পাকিস্তান। এ নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসছেন ভক্ত-সমর্থকরা। আর সে ক্ষোভের আগুনে পেট্রোল ঢেলে দিয়েছে কয়েকটি ভিডিও ফুটেজ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ছড়িয়ে পড়া কিছু ফুটেজে দাবি করা হয়েছে, ভারতের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে রাত ২টার দিকে সীসা বারে ছিলেন পাকিস্তান জাতীয় দলের কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার।

ভাইরাল ভিডিওতে পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক, তার স্ত্রী ভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা, ফাস্ট বোলার ওয়াহাব রিয়াজ ও ব্যাটসম্যান ইমাম-উল-হককে ম্যানচেস্টারের একটি সীসা বারে দেখা গেছে।

কয়েকজন ক্রিকেটভক্তের দাবি, তারা রাত ২টার দিকে শোযেব মালিককে সীসা গ্রহণ করতে দেখেছেন। এছাড়া, অন্য ক্রিকেটারদেরও বার্গার-পিজ্জার মতো ‘জাঙ্ক ফুড’ খেতে দেখা গেছে।

যদিও, রাতে বাইরে থাকাটা কোনো অপরাধ নয়। তবু, অনেক ক্রিকেটভক্তই তা মানতে নারাজ। তাদের মতে, রাতে বাইরে আড্ডা দেওয়া, সীসা-জাঙ্ক ফুড খাওয়ায় ক্রিকেটারদের মনোসংযোগ ও ফিটনেস নষ্ট হয়েছে। আর, এর প্রভাব পড়েছে ম্যাচের পারফরমেন্সে।

ভক্তদের দাবি অবশ্য একেবারে অস্বীকার করারও উপায় নেই। ভারত-পাকিস্তান মহারণে শোয়েব মালিক কোনো রান না করে আউট হয়েছেন প্রথম বলেই, ইমাম-উল-হক করেছেন ১৮ বলে ৭ রান, আর ওয়াহাব রিয়াজ ১০ ওভারে ৭১ রান দিয়ে পেয়েছেন মাত্র এক উইকেট।

পাকিস্তানি সমর্থকরা শুধু ক্রিকেটারদেরই নয়, আক্রমণ করেছেন সানিয়া মির্জাকেও। তবে, অন্যরা চুপ থাকলেও, জবাব দিয়েছেন ভারতীয় তারকা। তিনি টুইটারে সমালোচনার পাল্টা জবাবে বলেছেন, ভিডিওটি তাদের অনুমতি না নিয়েই ধারণ করা হয়েছে।

এছাড়া, ‘ম্যাচ হারলেও খাবার খাওয়ার অনুমতি আছে’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যসে ট্রল-সমালোচনা থামেনি, বরং বেড়েই চলেছে। অনেক সংবাদমাধ্যমের দাবি, এ নিয়ে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের নোটিশ, এমনকি শাস্তিও পেতে হতে পারে।