সংরক্ষিত আসনে সংসদে যাচ্ছেন অপু বিশ্বাস?


জাতীয় সংসদ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আইনসভা। এ আইনসভার সদস্য সংখ্যা ৩৫০। যার মধ্যে ৩০০ জন সংসদ সদস্য জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন। বাকি গুলো সংরক্ষিত নারী আসন। ১৫ জন দিয়ে সংরক্ষিত এই আসনের যাত্রা হলেও বিভিন্ন সরকারের শাসনামলে এখানে এসেছে অনেক পরিবর্তন ও সংযোজন হয়ে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০টি আসনে।সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্যগণ নির্বাচিত ৩০০ সংসদ সদস্যের ভোটে (পরোক্ষ নির্বাচন পদ্ধতিতে) নির্বাচিত হন।



আজ বিকালে রাষ্ট্রপতি কাছে থেকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রী পরিষদের সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেছেন। এর আগে একাদশ সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেন।

সংরক্ষিত আসনে এমপি হওয়ার আলোচনায় এগিয়ে আছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন কিনবেন এমন গুজবও ছড়িয়েছিল। সেই গুজব নাকচ করে দিলেও তিনি সক্রিয় ছিলেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রচার-প্রচারণায়। নির্বাচনের শুরু থেকেই ভিডিও বার্তাসহ দেশের নানা প্রান্তে ছুটে গেছেন নৌকার প্রার্থীদের জন্য ভোট চাইতে।

তবে এবার অপু বিশ্বাস নিজেই জানালেন, সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান তিনি। অপু বলেন, ‘আমি পারিবারিকভাবেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনীতির আদর্শে বেড়ে উঠেছি। তার রাজনৈতিক জীবন ছোটবেলা থেকেই প্রভাবিত করেছে। রাজনীতিতে আমি সক্রিয় নই। এবারই প্রথমবার রাজনীতির মাঠে ছিলাম নৌকার প্রচারণায়। এছাড়াও নানারকম সামাজিক কার্যক্রমে আমি জড়িত।’

অপু আরও বলেন, ‘অনেক সংগ্রাম করে নিজেকে আজকে একটি অবস্থানে নিয়ে এসেছি। অভিজ্ঞতায় দেখেছি দেশের বঞ্চিত নারী ও শিশুরা কতো প্রতিবন্ধকতার শিকার হয়। তাদের জন্য অনেক কিছু করার পরিকল্পনা আছে আমার। তার বাস্তবায়নের জন্য আমার সংগঠিত হওয়া প্রয়োজন। সেজন্য সবকিছু ঠিক থাকলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন চাইব আমি।’