‘তারেককে লন্ডন থেকে ধরে এনে দেশের মাটিতে বাচার করবো’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে প্রার্থী দেওয়ার ক্ষেত্রে টাকার খেলা খেলছে। যে যত বেশি টাকা দিয়েছে তাকে মনোনয়ন দিয়েছে। তিনি আজ বিকেলে সিলেটের আলিয়া মাদরাসা মাঠে নির্বাচনী জনসভায় এ কথা বলেন।



শেখ হাসিনা বলেন, তারেক রহমান লন্ডনে বসে নাটাই নাড়াই। টাকা দিয়ে নমিনেশনপত্র বিক্রি করেছে। যে যত বেশি টাকা দিয়েছে একজনকে বাদ দিয়ে তাকে দিয়েছে। ৪/৫ কোটি টাকায় নমিনেশন পেপার বিক্রি করেছে।

তিনি বলেন, তারেক সাজাপ্রাপ্ত আসামি আমরা নির্বাচিত হলে তাকে লন্ডন থেকে ধরে এনে দেশের মাটিতে বাচার করবো ইনশাল্লাহ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নৌকা মানুষের বন্ধু, বিপদের বন্ধু। সেই হযরত নুহ আ. এর আমলে যখন বন্যা হয়েছিল তখন মানুষ নৌকাতে করেই রক্ষা পেয়েছিল আল্লাহর রহমতে। আওয়ামী লীগের নৌকা সেই নৌকা। কারণ এই নৌকাতে ভোট দিয়ে জনগণ বাংলাদেশ পেয়েছে।

তিনি বলেন, নৌকায় ভোট দিয়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। নৌকায় ভোট দিয়ে মাতৃভাষা বাংলায় কথা বলার অধিকার পেয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা নৌকায় ভোট দিয়েছিলেন বলেই ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে। দেশের উন্নয়ন তরান্বিত করা সহজ হয়েছে। ২০২১ সালে আমরা প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেব। কোন ঘর অন্ধকার থাকবে না।

তারা বাংলাদেশকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করেছিল। বিশ্বের মানুষকে বাংলাদেশকে ভিক্ষুকের দেশ, দুর্ভিক্ষের দেশ, জলোচ্ছাসের দেশ। কিন্তু এখন বাংলাদেশ মানে উন্নয়নের দেশ। উন্নতির দেশ। সমৃদ্ধির দেশ। সম্মানের দেশ।