প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে যা করলে খুব দ্রুত ফর্সা ও সুন্দর হবেন!


কেবল নারীরা নন, পুরুষেরাও এখন সমান আগ্রহী সুন্দর ও আকর্ষণীয় চেহারা পেতে। ফর্সা ও আকর্ষণীয় দেখাবার স্বপ্নে নারীরা ব্যবহার করে থাকেন হরেক রকম প্রসাধনী। কিন্তু তাতে কি আসলেই সৌন্দর্য আসে? সৌন্দর্য সেটাই যা একদম প্রাকৃতিক। অনেকেই মনে করেন মেকআপ ছাড়া বুঝি প্রতিদিন সুন্দর দেখানো সম্ভব নয়। ধারণাটি একেবারেই ভুল। অল্প কয়েকটি কাজ করলে প্রতিদিন সকাল থেকেই আপনাকে দেখাবে সুন্দর ও প্রাণবন্ত। সৌন্দর্যের তারিফ করবে সবাই। আর এসবের পেছনে অনেকটা সময় বা অর্থ কিছুই ব্যয় করতে হবে না।



ঘুম থেকে উঠেই নিশ্চয়ই দাঁত ব্রাশ করতে যান? ব্রাশ করা শেষ হলে সামান্য একটু মুলতানি মাটি ও চন্দন গুঁড়ো হাতে নিন। অল্প অল্প পানির সাথে মিশিয়ে মুখ, গলায়, ঠোঁটে ব্যবহার করুন। ২/৩ মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। প্রয়োজনে এরপর ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন। এই ম্যাসাজ জরুরী। এতে মুখে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে। আপনার ত্বক উজ্জ্বল ও গোলাপি দেখাবে।

সকাল বেলা অবশ্যই খালি পেটে এক গ্লাস উষ্ণ পানি পান করবেন। এর বেশি নয়। কারণ বেশি খেলে হিতে বিপরীত হতে পারে। সারাদিনে প্রচুর পানি পান করবেন, সাথে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল বা ফলের রস। রাতে যদি ঘুম ভাঙে, তখনও অল্প অল্প করে পানি পান করবেন। বরফ শীতল পানি পরিহার করবেন।

সকালে মুখ ধুয়ে ভালো করে মুছে নিন। এরপর ব্যবহার করুন একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার ক্রিম। আপনার ত্বকে যা স্যুট করে সেটাই ব্যবহার করবেন। দিনে দুবার অন্তত। পরিষ্কার ত্বকে ক্রিম খুব ভালো কাজ করে। তাই মুখ মুছেই সাথে সাথে দিন।

ময়েশ্চারাইজার ক্রিমের উপরে হালকা একটু পাউডার বুলিয়ে নিতে পারেন। এতে সারাদিন ত্বক উজ্জ্বল দেখাবে ও তেলতেলে ভাব হবে না। মনে রাখবেন, মুখ তেলতেলে হয়ে গেলেও কালো ও নোংরা দেখায়। যাদের ত্বক খুব বেশি তেলতেলে, তারা ক্রিম ব্যবহারের পর এক টুকরো বরফ মুখে ঘষে নিতে পারেন। আর হ্যাঁ, বাইরে যাবার আগে সানস্ক্রিন কিন্তু ব্যবহার করতেই হবে।

যেহেতু মেকআপ করবেন না, তাই মাসকারা বা আইলাইনার ব্যবহারের প্রশ্নই আসে না। কিন্তু আকর্ষণীয় দেখাতে চোখের পাপড়িও সুন্দর হওয়া জরুরী। সামান্য একটু ভ্যাসেলিন নিন, চোখের পাপড়িতে মেখে নিন। এবার হাত দিয়ে বা কারলার দিয়ে পাপড়ি কার্ল করে নিন। মুহূর্তেই চেহারা আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

লিপস্টিক বা লিপগ্লস ব্যবহার করবেন না যদি পেতে চান ন্যাচারাল লুক। বরং রোজ লিপবাম কিনে নিন হালকা গোলাপি রঙের। সেটাই ঠোঁটে অল্প পরিমাণে একটু ম্যাসাজ সহকারে ব্যবহার করুন। ঠোঁট হবে এমনিতেই আকর্ষণীয়।

ভ্রু সুন্দর করে শেপ করা আছে কিনা খেয়াল করুন। প্রয়োজনে দুই/একটি চুল টিজার দিয়ে তুলে ফেলে ভ্রু শেপ করে নিন। ভ্রু এলোমেলো থাকলে মুখকেও নোংরা মনে হয়।

ব্যাগে সবসময়ে ফেস ওয়াইপার রাখুন। মুখ বেশি তেলতেলে বা নোংরা মনে হলে হালকা করে ওয়াইপ করে নিন। দেখবেন তেল ও ময়লা সরে যাবে।

চুল পরিষ্কার রাখুন। প্রয়োজনে প্রতিদিন শ্যাম্পু করুন। চেহারা সুন্দর দেখাতে সুন্দর দাতের মতোই সুন্দর চুলও অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তেল চিটচিটে চুলে চেহারার সকল আকর্ষণ হারিয়ে যায়।

অন্তত ৮ ঘণ্টা রোজ রাতে ঘুমাতে হবে। ঘুম না হলে কোন রূপচর্চাতেই চেহারা সুন্দর হয়ে উঠবে না। মনে রাখবেন্, ভেতর থেকে আসে যা, সেটাই আসল সৌন্দর্য। আর হাসি আপনার সকল খুঁত চাপা দিয়ে দেয়। তাই নিজের দিকে মনযোগ দিন, হাসতে থাকুন, চেহারা নিজে থেকেই উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।