সৌদি আরবের শক থেরাপি প্রয়োজন -যুবরাজ

প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০১৮ / ১২:৪২পূর্বাহ্ণ
সৌদি আরবের শক থেরাপি প্রয়োজন -যুবরাজ

দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে সৌদি আরবের শক থেরাপি প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। ওয়াশিংটন পোস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেছেন। যুবরাজ বলেছেন, ‘আপনার সারা দেহে ক্যানসার ছড়িয়ে পড়েছে, দুর্নীতির ক্যানসার। আপনার কেমো প্রয়োজন। কেমোর শক না হলে ক্যানসার সারা দেহে ছড়িয়ে পড়বে।’
বহুল আলোচিত দুর্নীতিবিরোধী অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই লুটপাট বন্ধ করতে না পারলে সৌদি তার বাজেট লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে পারত না।’

ভিডিওটি দেখুন এখানে

গত বছর নভেম্বরে যুবরাজ মোহাম্মদের নির্দেশে রাজপরিবারের সদস্য, প্রিন্স, শীর্ষ কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীসহ শতাধিক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। এদের অনেককেই রাখা হয়েছিল রিয়াদের বিলাসবহুল রিৎজ হোটেলে। শীর্ষ ধনী ও বহুজাতিক কোম্পানিতে বিনিয়োগকারী প্রিন্স আল ওয়ালিদ বিন তালালসহ অনেককেই পরে অর্থের বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। এসব ব্যক্তির কাছে থেকে ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি অর্থ আদায় করা হয়। চলতি অর্থবছরে সৌদি বাজেট ঘাটতি ধরা হয়েছে ৫২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। দুর্নীতির অভিযোগে আটক ব্যক্তিদের কাছ থেকে আদায় করা শত বিলিয়ন ডলার সৌদিকে সেই বাজেট ঘাটতি থেকে উদ্ধার করেছে।
ওয়াশিংটন পোস্টকে যুবরাজ মোহাম্মদ বলেন, ‘দুর্নীতিবাজ প্রিন্সদের সংখ্যাটা কম। তবে এটা অপরাধীদের সতর্ক করবে। এটা রাজপরিবারের শক্তিকে ক্ষয় করছে।’
সোমবার সেনাপ্রধানসহ সৌদি সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করেছেন বাদশাহ সালমান। ধারণা করা হচ্ছে, যুবরাজ মোহাম্মদের পরামর্শেই এটা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে যুবরাজ বলেন, ‘আমরা বিশ্বাসীদের সঙ্গে কাজ করতে চাই।’