উপসাগরীয় অনর্থক অবরোধ ব্যর্থ করে সার্বভৌমত্ব রক্ষা করেছি: কাতারের আমির

প্রকাশিত: ফেব্রু ১৮, ২০১৮ / ০১:৪১অপরাহ্ণ
উপসাগরীয় অনর্থক অবরোধ ব্যর্থ করে সার্বভৌমত্ব রক্ষা করেছি: কাতারের আমির

কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি বলেছেন, ২০১৭ সালে তার দেশের ওপর আরোপিত অবরোধ একটি নিরর্থক কূটনৈতিক সংকট। এই সংকট মোকাবিলা করে তার দেশ সার্বভৌমত্ব রক্ষা করেছে। শুক্রবার তিনি এই মন্তব্য করেন। জার্মানির মিউনিখে এক নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিয়ে তিনি এই মন্তব্য করেছেন বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি।

ভিডিওটি দেখুন এখানে

সন্ত্রাসবাদে সমর্থনের অভিযোগ এনে সৌদি আরবের নেতৃত্বে কয়েকটি দেশ গত বছরের জুনে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিসর কাতারের ওপর স্থল, নৌ ও আকাশপথের অবরোধ আরোপ করে।

শুক্রবার জার্মানির মিউনিখ শহরের এক নিরাপত্তা সম্মেলনে কাতারের আমির বলেন, আমাদের প্রতিবেশীদের তৈরি করা এই সংকট ছিল একটা নিরর্থক প্রচেষ্টা। এই প্রতিবেশীদের কেউ কেউ আঞ্চলিক ক্রীড়নক, যাদেরকে একসময়ে বৈশ্বিক পর্যায়ের স্থিতিশীলতার ফ্যাক্টর বলে বিশ্বাস করা হতো।

কাতারের আমির বলেন, আমাদের জনগণের ওপর আরোপিত এই অবৈধ ও আগ্রাসী অবরোধের ফলাফল নিষ্ক্রিয় করে দিয়ে কাতার নিজের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করেছে। এই ব্যর্থ অবরোধ দেখিয়ে দিয়েছে, একটি ছোট রাষ্ট্র কিভাবে কূটনীতি ও কৌশলগত অর্থনৈতিক পরিকল্পনার মাধ্যমে বড় ও উচ্চাকাঙ্ক্ষী প্রতিবেশীদের আগ্রাসী ঝড় মোকাবিলা করতে পারে।

আল থানি বলেন, মধ্যপ্রাচ্য একটি কিনারায় দাঁড়িয়ে আছে। এখান থেকে ফেরার সময় হয়েছে। আমাদের সবাই বিশেষ করে যাদের বেশি ক্ষমতা ও সম্পদ আছে তাদের সংঘর্ষের সমাধানের দায়িত্ব আছে। এই ধরনের লক্ষ্য পূরণে মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাহায্য দরকার হবে। গত মাসে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী রেক্স টিলারসন সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটকে কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক মিটিয়ে ফেলার আহ্বান জানায়।

ইত্তেফাক